শ্রীলংকায় অর্জুনা রানাতুঙ্গাকে জিম্মির চেষ্টা, দুজন গুলিবিদ্ধ

প্রকাশ: ২০১৮-১০-২৮ ১৩:১৪:৩৮ || আপডেট: ২০১৮-১০-২৮ ১৩:১৪:৩৮

অনলাইন ডেস্ক

প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমসিংহেকে বরখাস্ত করার পর এটিই প্রথম সহিংসতার ঘটনা। ছবি: নিউজফার্স্ট।

শ্রীলংকার বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেট অধিনায়ক ও বর্তমান জ্বালানী মন্ত্রী অর্জুনা রানাতুঙ্গাকে জিম্মি করার চেষ্টা চালিয়েছে বিরোধী রাজনৈতিক কর্মীরা। তবে দেহরক্ষীরা গুলি চালিয়ে তাকে রক্ষা করতে সমর্থ হয়েছেন। এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়েছে দুজন। এনডিটিভি।

শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমসিংহেকে বরখাস্ত করার পর শ্রীলংকায় সৃষ্ট অচলাবস্থায় এটিই প্রথম সহিংসতার ঘটনা।

পুলিশ বলে, ‘কলম্বোতে প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনার অনুগত কর্মীরা অর্জুনা রানাতুঙ্গাকে জিম্মি করার চেষ্টা চালায়। পরে রানাতুঙ্গার দেহরক্ষীরা গুলি চালিয়ে তাকে রক্ষা করেন।’

শুক্রবার জোটের শরীক দলীয় প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমসিংহকে বরখাস্ত করে সাবেক প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপাকসেকে নিয়োগ দেন প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপল সিরিসেনা। বিরোধীরা প্রেসিডেন্টের পদক্ষেপকে অসাংবিধানিক বলে ঘোষণা করেছে। এ নিয়ে সাংবিধানিক সংকটে পড়েছে ভারত মহাসাগরীয় দেশটি।

অর্জুনা রানাতুঙ্গা রনিল বিক্রমসিংহের দল ইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টির সংসদ সদস্য ও জোট সরকারের জ্বালানী মন্ত্রী।

শ্রীলংকার বর্তমান প্রেসিডেন্টের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমসিংহের দ্বন্দ্বে রাজনীতিতে অস্থিরতা তৈরি হয়। এর জেরে বর্তমান জোট সরকার থেকে সমর্থন তুলে নেয় প্রেসিডেন্ট সিরিসেনার রাজনৈতিক দল ইউনাইটেড পিপলস ফ্রিডম অ্যালায়েন্স। এরপরই ইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টি হতে আসা প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমসিংহকে বহিষ্কার করেন প্রেসিডেন্ট সিরিসেনা।

ট্যাগ :